ED summons TMC’s Iqbal Ahmed as part of Narada probe

The ED is looking into a “sting operation” conducted by Narada News CEO Mathew Samuel, where a number of TMC leaders — including MPs and ministers — were allegedly seen accepting money for favours. Samuel had claimed Ahmed had arranged various meetings with Trinamool leaders, and had taken money for doing so.

By: Express News Service | Kolkata | Published:June 20, 2017 1:42 am
enforcement directorate, narada news scam, iqbal ahmed, kolkata According to sources, the ED is yet to receive any response from Ahmed after asking him to appear before it on June 21

The Enforcement Directorate (ED) has summoned Kolkata Municipal Corporation deputy mayor Iqbal Ahmed in connection with the Narada sting case, after he skipped appearing before CBI earlier due to “health concerns”.

According to sources, the ED is yet to receive any response from Ahmed after asking him to appear before it on June 21. The TMC leader is likely to evade the ED summons as well on health grounds, sources said.

The ED is looking into a “sting operation” conducted by Narada News CEO Mathew Samuel, where a number of TMC leaders — including MPs and ministers — were allegedly seen accepting money for favours. Samuel had claimed Ahmed had arranged various meetings with Trinamool leaders, and had taken money for doing so.

The KMC deputy mayor had earlier been summoned by the CBI on June 15, and had been questioned for almost eight hours.

He is likely to be questioned by the agency again, sources said.

For all the latest Cities News, download Indian Express App

  1. A
    asit guin
    Jun 23, 2017 at 10:38 am
    হারাধনীর তেরোটা ভাই হাতিয়েছিল টাকা সবার চিত্র ফুটেজ করে রেখেছে হুল কাকা। টাকা দারুণ মুখরোচক, এবং উপাদেয় কাজে কাজেই… দেশের জন্য… দু'হাত মেলে চেয়ো। হাপুসহুপুস গিলবি টাকা, ভরিয়ে ফেলে অন্ত্র। বদহজমটি ঘটলে রটাস… এ'সব ষড়যন্ত্র। দেশের সেবা? সবাই জানে ওইটি উপলক্ষ্য। অর্থ উপার্জনেই লেখা রাজনৈতিক মোক্ষ। পড়লে ধরা করবি প্রচার… ভিডিও সব জাল যদ্দিন না কাবার্ড থেকে বেরোচ্ছে কঙ্কাল। এবং তখন পাল্টাবি সুর… সবাই নাকি জানত উৎকোচ নয়, এ'সব টাকাই নিছক অনুদান তো। কে নেই সামিল? মন্ত্রী-সান্ত্রী। মহামহিম নেতাও। হারাধনীর আদেশ ছিল দলকে ভোটে জেতাও। কেউ গিলেছেন টাওয়েল মুড়ে প্রাতরাশের বেলায় বন্দরে এক হাঙর খাচ্ছে দারুণ অবহেলায়। ফিজিক্স-টিচার গিলছে টাকা। মুখে কি? লজ্জাই। বেজায় কেতার একটি নেতার ও'সব বালাই নাই। ভীতুর চিন্তা… বিষবৃক্ষের ফলটি এ'বার ফলবে। আশায় থাকে, মিছিল করে দল যা' বলার বলবে। তাদের সাফাই দল জানে সব। আমরা নিছক সভ্য। অন্যে বলে কোর্ট কাছারি… করব না মন্তব্য। নাচিয়ে ভুরু এক ভাই কয় ব্যাপার ভারি আইনি। সেটিং হলেই প্রমাণ হবে, আমরা কিছু খাইনি।
    Reply